কবুল এবং শংকামুক্ত সম্পর্ক

Share Button

Wali-mahmud

ওয়ালি মাহমুদ

অর্পিত অনুরোধ রাখতে পারিনা, তাই তোমার এতো অনুযোগ। পুড়েছে গহীন বলো-শুধু কি গহীন? আমি তো বলেছি,  আমি যে ভিন। করবির পাপড়িতে কুসুম ফোটে কি ফোটেনি দেখিনি যে চেখে। এতো কথামালার বিবর্ণ বেলা, কি গিয়েছি রেখে? বুকের আঙ্গিনায় যে ’নু আমার ধন। সুখের লাগি আমিনু হে, সপি দেহ-তনু-মন। যদি নদীর স্বচ্ছ ঢেউ’র জন্য বলতে পারি ভালবাসি। বৃষ্টির এক ফোটা কণার জন্য বলতে পারি ভালবাসি, তাহলে কেন পারবনা বলো হে  অনুক্ত অভিমানী।

[ .. ] আমার সিনায় ভরে, হৃদয়ের কম্পিত স্বরে বাসা-বাসির সোপান। কবিতার অক্ষরে অক্ষরে গড়ে উঠে চৌকোনা দালান। এতো শুধু ভালবাসার এক পরত। সুখ বর্ণমালার হাউশ উঠে বাক্যের লাগি। মাঙ্গি ও আমার সুখের পরত কবিতার পরাণ বলে, অথচ এখানে প্রিয়জন নেই, তবুও চরণ লিখি হে… ছায়ায় ছায়ায় দ্বিরুক্তি তবুও… দেখার মধ্যে ভাসে বুকের আধখানি হাসিতে ভাঙ্গা অরূপ।

[ .. ] এসো কবিতার কাবিনে বিনোদিয়া…হও বুক-জমা দলিলের উকিল। মায়াবদনে বাঁধন খোলা জমানো বিকেল। আঙ্গুলির ফাঁকে ফাঁকে ঝরে পড়ে খুচরো গোনাহ। সে যে অনুমোদিত কবুলের পর, আমি ভাঙ্গতে যাই সিলগালা দেয়া হৃদয়ের ঘর। ধরো এই নাও ফাতিমা মোহর।

[ .. ] …’ই তোমার আঁচল বিছানি সোহাগ, ফোটে ঘাস-ফুল-তরুলতায়, এক হওয়া যুগল পত্রে । কোন জেন্ডারে ঠিক চিহ্ন দেব বল হে। অত:পর আমি মিশে যাই আমাদের পরাগে। মিশে গিয়ে ঢেলে দিই, চুড়ান্ত সুখদাগ। ….শুধু কবুলের পর আমি ভাঙ্গতে যাই, সিল গালা দেয়া হৃদয়ের ঘর।

পাঠকের মতামত

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

}
© Copyright 2015, All Rights Reserved. | Powered by polol.co.uk | Designed by Creative Workshop