তত্ত্বের উপাত্তে অদৃশ্য নিরন্জন

Share Button

Wali-mahmud

ওয়ালি মাহমুদ

পড়শীনগরের মারেফত মহল্লায় বৃক্ষরোপন কর্মসূচীতে বপন করি- দেহ তত্ত্বের বীজ। হায়া-শরম পানি ঢালে ঝুরি মাঠির চারিদিকে। গরছি দিয়ে বেড়া দেয় তত্ত্বকথা। লম্বালম্বি সূর্যালোকের আয়তক্ষেত্রটি প্রার্থনা করে রুহের রূহানীর। তুরপাহাড়ের শীর্ষ-দেশে আশ্রিত হয় আমার কবিতার নিগূঢ়তত্ত্ব। উপাত্ত সাগরের ঢেউয়ের উপরে বসে কল্পনার রাইয়ত।

বীজটি এখন ’পরাহ্নের চারা হয়ে ফুলের আশায় পন্থ পানে চেয়ে থাকে। ভ্রমরার বংশ লতিকায় বাঁধে দুল, নাকেতে নোলক। মুসা নবী বেহুঁস হইন, শুইয়া রইন, দেখিয়া দয়ালের ঝলক। ও কবিয়াল, কি কথা লিখ তুমি রোধস্-এ বসি।

অন্ধকার তাড়িয়ে ক্লান্ত সূর্য অন্ধকারেই নিদ্রা যায়। খনে অনুভব করি অনুভূতির তীব্র দাহন, খনে দহন। রোদস্ এর রোজনামচার রঙধনুতে রঙ মিলাই দফায়-দফায়। অক্লান্ত পরিশ্রম শেষে অবিরাম কমা টানেন, অদৃশ্য নিরন্জন।

ও মন রে, পড়শীনগরের মারেফত মহল্লায় বৃক্ষরোপন কর্মসূচীতে বপন করি, দেহ তত্ত্বের বীজ।

পাঠকের মতামত

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

}
© Copyright 2015, All Rights Reserved. | Powered by polol.co.uk | Designed by Creative Workshop