লুৎফুর রহমানের স্বাধীনতার তিনটি ছড়া

Share Button

1935376_955312124523729_931077233158942550_n

স্বাধিনতা: সেইদিন, এইদিন!

রাজাকারের বিচার এবং চাইছে আজি শাস্তি কে?
-আর বলো না ও মিয়া ভাই ভ্রষ্ট তরুণ নাস্তিকে।
একাত্তরে মুক্তিসেনা ভাঙলো লড়ে ঘোর তাদের
-তাদের তখন নামটা দিছি কাফের এবং মুর্তাদের।

মুনাফিক ও মীরজাফর আর একাত্তরের রাজাকার
-হুজুর আমার ‘সাফছুতরা’ চাইছে ওরা সাজা কার?
চাইছে বিচার গণহত্যার একাত্তরের র=্যাপ
-চুয়াল্লিশটা বছর গেছে পড়ছে অনেক গ্যাপ
-আমরা এখন দেশদরদী কেউবা করি ন্যাপ।

সকলদেশে যুদ্ধাপরাধ বিচার আজো হয়
-নষ্ট তরুণ বিচার চেয়ে করছে দেশের ক্ষয়
দেশপ্রেমটা এতোই যদি করলা পাকির গোলামি?
-ধর্ম বাঁচাও এই বলেছি তখন কেবল বোল আমি
-সুন্দরীদের ধরতো হুজুর ধরছি কেবল চুল আমি।

একাত্তরের মুক্তিসেনা নামটা দিলেন মুর্তাদের!
-পাকিস্তানের বিরোধ করে চাইনি আসুক ভোর তাদের।
নামাজ পড়ে একটি ছেলে নামটি এখন নাস্তিকে
-হুজুরদেরি ক্যান মানেনি আর দিবে তার শাস্তি কে?
-বলছি আমি ফান করেছি ভুল বলে ক্যান মাস্তি কে?

 

ডাকছে স্বদেশ

দেশ খেতে করেছিলো
জানো কারা চুক্তি?
রুখেছিল শালাদেরি
দেশপ্রেমি মুক্তি।

পাকিদের হাতে কারা
তুলে দিল বোন রে
মাফ করি ক্যামনেতে
শোন্ সবে শোনরে।

কইনিতো ভাত খাবো
ছেলেটার দুধ দে
এইদেশ এনেছিরে
স্বাধিনতা যুদ্ধে।

সংগ্রাম-সংগ্রাম
আজ থাকে মিছিলে
দেশপ্রেমে রক্তটা
একটু কি দিছিলে?

দাওনিতো মুখ তুলো
শ্বাস আছে রুদ্ধে
ডাক দিছি তোমাদের
নতুন এক যুদ্ধে।

তোমরাতো পারো দিতে
ভুল গুলো শুধরে
তাই জাগো নবীনেরা
জাগিয়েই বোধরে।

সুর তোল চাই সবে
দেশ মাঝে সাজা কার?
যেই শালা ছিল যারা
রাজাকার, রাজাকার।

এই দাবি কালিমাটা
দেশ করো মুক্ত
এ যুগের যুদ্ধতে
হও তুমি যুক্ত।

 

একাত্তরের বীরজনতা!
একাত্তরের বীরজনতা
আজকে কেন নির্জনতা
ছুঁড়ো তোমার তীর জনতা
রাজাকারের গায়
কারণ তারা বাড়ছে আজি
দেশের মাটি কাড়ছে আজি
ঘুরছে ডানে-বাঁয়।

একাত্তরের মা জননী
জানি বুকে ঘা জননী
কোথায় তোমার পা জননী
খুলো এবার জুতা-
ওদের মুখে জোরসে মারো
দেশ-বিদেশে ঘুরছে আরো
দুখ যে বুকে পুঁতা!

বীর জনতা, মা জননী
জাগাও চেতন ও মনন-ই!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

}
© Copyright 2015, All Rights Reserved. | Powered by polol.co.uk | Designed by Creative Workshop