শশ্রুমন্ডিত ৭১

Share Button

Faruk-Joshi
ফারুক যোশী

[ক] কি হবে জেনে যুদ্ধদিনের কথা
সাই সাই গুলি, জ্বলছিলো মন্দির, পুড়ছিলো গ্রাম
মসজিদের প্রার্থনায় ছিলো না প্রাণ. ধর্ষিতা হচ্ছিলো প্রিয় দেশ
বারুদের গন্ধে তখন নেশা জাগে
গন্তব্য তখন‘জয় বাংলা’

[খ] কিসের মুক্তিযুদ্ধ ?
সুন্দরবন উজাড় হয়ে যাচ্ছে, আমার রক্তে ভারতের উৎপাদন রামপালের বিদ্যুতে বাঘের সংহার মানে না লাখো-কোটি মানুষ। রাস্তায় রাস্তায় মানুষের মিছিল– যাকে বলে লং মার্চ
আমরা মৃত্তিকা চাই, পলল থেকে ফুটে উঠছে যেখানে প্রকৃতির অবিনাশী গান
প্রান্তর ছোয়া ঢেউ ঢেউ বলেশ্বর নদী কিংবা ওপারে কাশবন।
এ বন আমাদের আগলে রেখেছে যুদ্ধে, মা যেমন আগলে রাখে
তার সন্তান। কাল থেকে কালান্তরে।

[গ] সেই মুক্তিযোদ্ধা
যুদ্ধের পরীক্ষিত প্রৌড় ! স্বাধীনতা এনে দেয়া অসহায় শ্রমিক -শেওলার ফেরীতে পুরনো পয়সার বাক্স হাতে হেটে বেড়ানো    শশ্রুমন্ডিত ৭১’ র ভেজা গলার উচ্চারণ-
‘মাদ্রাসায় সাইজ্য খরইন……’
কুশিয়ারার পানি কেটে কেটে ফেরী এগোয়। স্বৈরাচারের পতনে আমাদের গলা উঁচু হয়।
কিশোরীর চুল উড়ে বিকেলের হাওয়ায়।
ওপারে ধাক্কা দেয় ফেরী,গন্তব্য খোজে মানুষ ।
পেছনে পড়ে থাকে একজন মুক্তিসেনা – কানে ভাসে সাই সাই গুলির শব্দ
যুদ্ধ-যোদ্ধা-স্বাধীনতা আর ‘মাদ্রাসায় সাইজ্য খরইন…..’ !

এখন শেওলার ফেরী নেই। কোলাহল  নেই পুরনো সেই ঘাটে ।
তবুও আমি খোজে ফিরি সেই শশ্রুমন্ডিত ৭১’
যদি পেয়ে যাই!
দেখি দৈবতালে তিনি হয়ে গেছেন নকল কোন মুক্তিযোদ্ধা
যার বাক্স নেই, ছেড়া পাঞ্জাবী নেই – প্রস্তুতি নিচ্ছেন দেশসেবার

তা হবার নয়, জ্বরায়-দারিদ্রে শশ্রুমন্ডিত ৭১’ শুধুই মৃত্যুর প্রহর গুনে-
শেওলার ফেরী ঘাটে।

পাঠকের মতামত

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

}
AllAccessDisabledAll access to this object has been disabledBC05FA029A07A848PCsjCNaGNJe5LR37EUm8shabpwPl7QGhI7vSKfwUCEhy8mhVnccSAT4khjFW5vYYOQWwpzKLtN0=
© Copyright 2015, All Rights Reserved. | Powered by polol.co.uk | Designed by Creative Workshop