জামিল সুলতান

আমার যতো অকবিতা

জামিল সুলতান ১. ঝড় রাতে তরস্ত পাখির দৃষ্টান্ত ছাড়া জীবন কিছু না-কিচ্ছু না, পবনে পালক ভাঙলে তবেই ঘরমুখো হয় মানুষের পাখিমন। ২. শিকল কাটা জীবন নিয়ে কতোকাল আর লাশ হয়ে থাকা যায়, আমাকে মৃত্যু দাও যিশুপ্রাণ- আমি জীবন্ত হবো। ৩. ক্রমশ সংখ্যাগরিষ্ঠ হচ্ছে বেওয়ারিশ মৃত্যুর হার- ইশ্বর কেবল তামাক বাটয় ধোঁয়া জ্বেলে হুঁকা চুমেন। কেউ একজন আকাশটাকে মেলে ধরো, আমি লাশ হয় ফিরে যাচ্ছি… পৃথিবীজুড়ে বাড়ছে পাপ দিনে এবং রাতে।

Read More »

মঙলকপাট

জামিল সুলতান তুমি মানুষ চেনো না-তোমাকে মানুষ চিনতে হবে, মানুষ চেনা একান্ত প্রয়োজন… মানুষের কাছে না গিয়ে যাচ্ছ মসজিদে, চার্চে, ট্যাম্পলে…কেনো? কি আছে ওখানে? ইট পাথরের দেয়ালে আত্মবিসর্জন দিয়ে পুণ্য অর্জিত হয় না কোনোকালে। মানুষের নামে উৎসর্গিত হও-প্রার্থনা হবে তার নাম; প্রভুকৃপায় তবে-ই তোমার জন্য উন্মোক্ত হবে মঙলকপাট।  

Read More »

নদী সমাচার

জামিল সুলতান এক. আমার ওষ্ঠে চুম্বনের রেখা টেনে একনদী হেঁটে গেছে নিশিপথ। এখন স্পষ্ট অন্ধকারে দীর্ঘতর হচ্ছে আমার প্রতিটা রাত তুমি জানো না। দুই. আগুন বুকে সাঁতরে জলের নদী আমি নদীর জলে ভাঁজ করি বুকের আগুন আমাকে  প্রেমিক  হতে বলো না- পৃথিবীর সব পুরুষ প্রেমিক নয়; সঙ্গত কারণেই কেউ থাকে প্রেমের বিপরীত।খুনি।

Read More »

তুমি চাইলেই

  জামিল সুলতান তুমি চাইলেই আকাশটা দিতে পারি বাদল দিনে বৃষ্টি- বাঁক নিয়ে ফিরে যাওয়া নদী শিশির স্নাত ভোর- হলুদ পাতায় বিম্বিত দুপুর পদ্মভাসা দীঘির জলে গ্রামীণ বালিকার অবাধ সাঁতার কিশোর ক্লান্ত সন্ধ্যায় জোনাক জ্বলা মায়াবী আঁধার সবকিছু তোমাকে দেবো-এসবের সবকিছু তোমার তুমি শুধু একটি বারের জন্য অকালের এই কালে চিনে নাও তোমার স্বরুপ-তারপর; পৃথিবীর তাবৎ দুঃখের ফেরিওয়ালা একজন কবির চিতাপড়া পাঞ্জাবি পুরনো চশমা অচল হাতঘড়ি তোমাকে অনায়াসে দিয়ে যাবে কবিতা প্রেম ফুটন্ত গোলাপের সুগন্ধ  

Read More »
}
© Copyright 2015, All Rights Reserved. | Powered by polol.co.uk | Designed by Creative Workshop