শোয়াইব জিবরান

ঘুণে খাওয়া জীবন

শোয়াইব জিবরান তিনি ঘর ছেড়ে ছিলেন, ঘুণপোকাদের ভয়ে, সে পূর্ণিমার রাতে, পুবের দেশে। আর পশ্চিমের রাজা ঠায় দাঁড়িয়েছিলেন কর্তব্যবশে। ঘুণপোকারা তাঁর পেতেছিল মাটির শয়ান। অথচ সিংহাসন ছিল তাঁর, উঁচা আসমান। ঘুণপোকা এমনই শক্তিশালী। অথচ তারা অন্ধ, ভাষা নাই। আছে শুধু রাসায়নিক বিক্রিয়ার ভয়াবহ সংকেত রাশি; যা শক্ত কাঠকে গ্গ্নুকোজে রূপান্তরিত করতে পারে নিমিষেই। তারা কাঠ চেরাই করে চলে, নিঃশব্দে অন্তরে। আর নারীটি যেমন বলেছিল, বন পুড়লে সকলেই দেখতে পায়, কিন্তু মন পুড়লে দেখে না কেউ। যাকে নাগাল পায় এই সাদা ...

Read More »

পেছনের গল্প

শোয়াইব  জিবরান পাহাড়ের চূড়ায় চড়ে আমি যখন আমার হাতটি নাড়ালাম। তুমি শুধু দেখতে পেলে উজ্জ্বল মুখখানা, আড়ালে রয়ে গেলো দীর্ঘ বন্ধুর পথ হাঁটা রক্তাক্ত, ধুলোমাখা পা দুখানা।  

Read More »

দূরে ফুটে আছো

শোয়াইব  জিবরান বাঙ্গাল দেশে করি বাস দু:খে বুক ফাটি যায় তুমি ফুটে আছো বান্ধবী দূর কানাডায়।  

Read More »

মৃত্যু কি তবে

শোয়াইব  জিবরান ঘোমটা দেয়া আরব্য রমণী শেষ রোগশয্যার শিয়রে বসে আলতো করে জ্বরতপ্ত কপালে ছোঁয়াবে হাত আর আমারে  নিয়া দিগন্ত রেখা পার হয়ে যাবে?

Read More »

রক্তসন্ধ্যার গান

শোয়াইব  জিবরান রক্তে কি গোধূলি দেখা যায়? যাওয়া ভালো- শঙ্খ ঘোষ আমার চোখে কী জানি হয়েছে যেদিকে তাকাই দেখি সন্ধ্যা নেমেছে নিভে আসছে  আলো। এ রকম চোখে সন্ধ্যা নামা কী ভালো? ভরদুপুরে। আমার চোখে কী জানি হয়েছে যে দিকে তাকাই দেখি নিভে আসছে আলো। আর জল অবিরল, ঝরে। আজকাল এমন দিন যাচ্ছে প্রভূ যেদিকে তাকাই মনে হয় দিগন্ত জুড়ে রক্তসন্ধ্যা নেমেছে নিভে আসছে আলো ভরদপুরে দিগন্ত জুড়ে অমন রক্তসন্ধ্যা নেমে আসা কি ভালো?

Read More »

বাংলা, বাংলায়

শোয়াইব  জিবরান পৃথিমিতে আর কি কোন দেশ আছে? ছড়ায়ে আছে নক্ষত্রপুঞ্জের বুনোফুলের ইলিশের ঝাঁকের গুচ্ছ শিউলির মতো বিশ্বব্রহ্মাণ্ডের পথে পথে পশ্চিমবঙ্গে, লন্ডনে, নিয়র্কে কানাডায়। বাংলা, বাংলায়।  

Read More »
}
© Copyright 2015, All Rights Reserved. | Powered by polol.co.uk | Designed by Creative Workshop