কবিতা

খান অপু’র কবিতা

আমি একটা ছন্দ খুঁজি আমি একটা ছন্দ খুঁজি, খোঁজতে থাকি মন্দ লাগা আলপনা সব মুছবো বলে। আমি একটা ছন্দ খুঁজি, খোঁজতে থাকি দ্বন্দ লাগা জল্পনা তোর রুখবো বলে। আমি একটা ছন্দ খুঁজি, খোঁজতে থাকি স্বপ্নে বিভোর একটা ছেলের ঘুম ভাংগাতে। আমি একটা ছন্দ খুঁজি, খোঁজতে থাকি আসছে আমার পাগলা ঘোঁড়ার লাগাম ছুঁতে। আমি একটা ছন্দ খুঁজি, খোঁজতে থাকি ঋণ শুধিতে একাত্তরের মা জননীর। আমি একটা ছন্দ খুঁজি, খোঁজতে থাকি রঙ বাড়াতে ‘অ’ ‘আ’ ‘ক’ ‘খ’ ও হ্রস্ব-ই’র। আমি একটা ছন্দ ...

Read More »

মিলটন রহমান-এর দুটি কবিতা

না ইদানিং মেঘেদের রোদ ভালো লাগে আগুন আর বাতাসের রঙ এক হলে পাখিরা পরবাসী হয় এই দৈর্ঘ্য-প্রস্তের ভিড়ে আমি নিজের স্থান খুঁজি আগুন না বাতাসের বাড়িতে থাকি আড়াল জোছনা সরে যাচ্ছে কাটা কাটা অন্ধকার গিলে নিচ্ছে নিয়ন বাতাস তুমিও সরে যাচ্ছো আড়াল করছো প্রিয় অবয়ব কিন্তু যে ছাপ এঁকেছো পাঁজরে! সে ক্ষত লুকাবে কি করে?

Read More »

ফকির ইলিয়াস-এর কবিতা

কবিতার দুইপ্রহর তুমিই কি প্রথম শিখিয়েছিলে বাঁকের কৌশল কিংবা ফেরার দ্বিতীয় পথে ঢেলেছিলে কিছু নীলজল আমি তাতে দেখে মুখ,চিনেছিলাম দু’খের প্রণয় যেভাবে পাখিরাও উড়ে যেতে , আঁকে ছবি পালক সুতোয় মায়াডোরে বেঁধে। রাখে হাত উপাত্তের অদূর অতীতে আমিও বাড়িয়ে হাত,রাখি শীতে – আগুনের ত্রিশীতল গীতে বাঁধি রাগ, হ্রস্বরেখা আর কিছু ভুলের নিয়ম ভুলেই অতন্দ্র থেকে পোষি নদী, ওজনের ওম ।

Read More »

জাহাঙ্গীর রানা’র কবিতা

কবিতিকা চাতালে চাঁদোয়া চাঁদ চায় চারু চোখ রুপালি জ্যোত্স্না জল আমরা দুজন যেন বালিহাঁস কোনো এই তো আনন্দলোক চল আজ ভেসে যাই জল টলমল অঝর অরতি ঝরে হোক স্নান কতযুগ পর আজ ভালোবেসে মিটে যাক সুখের অসুখ |

Read More »

এম মোসাইদ খানের কবিতা

দক্ষিণের আকাশ দাঈমার কুলে বসে খণ্ড জীবনের গল্প বলতে গেলে দক্ষিণের আকাশে চোখ পড়ে যায় হুমড়ি খেয়ে পড়ি মৌরসী ভুমে, যেখানে চাঁদের জোয়ারে পোড়ে খড়ি মাটির ঘর মেঘের পাঁজরে ফোটে জোস্নার ফুল, সনাতন বৃক্ষের ছায়ায় বাতাসে সুগন্ধ বিলায় কেওয়াবন। ঘাসফড়িং ডানায় মুক্তার মতো ঝলমল করে নির্মল কবিতার শরীর । যেখানে পিঠার নকশীতে স্পষ্ট মায়া কৃষাণীর আচঁল চুষে চাষা কপাল, একই থালা ভাত পরস্পর মুখী তৃষ্ণা খসে পড়ে, নিরামিশ চোখ যেনো যাদুর কাঠি। যেখানে নদী আর নারী সমানে সমান সৌখিন যুবা ...

Read More »

সৈয়দ রুম্মানের কবিতা

বদমাশ হলে শুয়োরের মতো স্পর্শ করলে ঠোঁট অনায়াসে আমি চলে আসতাম বৃত্তের অভিমুখে সবকিছু ভুলে পাড়ি জমাতাম আর্ট গ্যালারির দিকে …ফ্রেমে আঁকতাম যাবতীয় আলপনা। যত গালি দাও সরে আসতাম অতিথি পাখির মতো, খুঁজতাম ঠিকই লেকের কিনারে নতুন কোনও মিতা ঝেড়ে ফেলতাম পুরনো সকল লাম্পট্যের খেলা। লাজুক ঠোঁটের আলঘেঁষে দিতে অপবাদ-‘বদমাশ’। সীতার আসনে দেখতাম আমি ঘুমঘোর দুটি চোখ কাঁপছে কেমন অশ্রুর ভারে ভালোবাসা হত্যায়! একাকী ভাববে নিদ্রাবিহীন সেইসব দিনগুলো – দূরপাল্লার ট্রেনের মতন আমাদের দেখাদেখি। রোদন-টোদন মানবো না আমি চলে যাব ...

Read More »

মুহাম্মদ মুহিদের কবিতা

রেখে যাবো তোমার জন্য রেখে যাবো একগুচ্ছ আগামীকাল, তোমার তরে রোপন করে যাবো এক মুঠো সম্ভাবনার বীজ। সবুজ ঐশ্বর্যের মুকুট মাথায় নিয়ে একদিন দাঁড়াবে আশা-তরু, তোমার জন্য লিখে যাবো সোনালী সকালের গল্প; জীবনের অনুপ্রেরনার ইতিহাস। শুদ্ধতার রঙে রাঙাবো তোমার অনাগত সময় সমস্থ সত্যের প্রলেপে, তোমার পৃথিবী অম্লান রবে সৌরভে-গৌরবে ।

Read More »

ফকির ইলিয়াসের কবিতা

পরিণত পালকের ভিড়ে থেকে যাও হে অগ্নি , ঈশানের রূপ আমি আবারও জলের নিশ্চুপ রেখা করে যাবো পরখ। বিনয়ে করে যাবো ঢেউয়ের প্রণয় বন্দনা , সয়ে সমূহ উত্তাপ। কিছু আলো ঢেলে দিয়ে ভাসাবো নিজেকে, জলে নেমে ভেজাবো পাঁজর আর উত্তরের বাঁকে ডুবে যাওয়া অষ্টম প্রহর। থেকে যাও হে বৃষ্টি , পরিণত পালকের ভিড়ে তোমার প্রতিমা দেখে ফিরবে নীড়ে পাখিরাও প্রবল প্রতাপে আমি তার সাক্ষী থেকে খুঁজে নেবো সুখ,সূর্যঅনুতাপে।

Read More »

হাবীবাহ্ নাসরীন এর কবিতা

এমন তো হতেই পারে এমন তো হতেই পারে, এমনও তো হয় মাঝে মাঝে জিতে যায় কিছু পরাজয়! কিছু জয়ে মিশে থাকে পরাজিত ঘ্রাণ হাতে হাত ধরা তবু অধরা রয়ে যায়! প্রতিদিন হেসেখেলে লুকাও যে জল তোমার অজান্তে সে দীঘি টলমল হয়ত সে কারণে কারো বুক আনচান তোমারই মতই সে পোড়ে অবিকল! যাকে দেখে ভোর হয়, রাত ঘুম যায় হতে পারে, কোনোদিনও সে তোমার নয়! ভালোবাসো, না কি নয়? প্রশ্ন হাজার দুআনা লাভের খোজেঁ বণিক হৃদয়! এমন তো হতেই পারে, এমনও ...

Read More »

মোহাম্মদ গোলাম কিবরিয়া’র কবিতা

তুমি নেবে কি সব শুভ্রতা আজ আকাশের দূর সীমানায় নীলরঙা চাঁদ ওঠেছে প্রগাঢ় প্রলম্বিত সূধাময় চাঁদ। চাঁদের রং ও কখনো কখনো নীল হয় আজ আকাশের দিকে না তাকালে বুঝতেই পেতাম না। নীল চাঁদ ভীষণ অন্ধকারে কেমন নীলাভ আলো ছড়াচ্ছে… এই সবটুকু নীল আজ তোমার পায়ে জড়ালাম তোমার সুঢৌল দু’টো পা কেমন স্বপ্নিল হয়ে উঠছে তাই। আমার তিমিরাকাশের নীলাভ চন্দ্রিমা তোমার পায়ের ঘুঙুর হয়ে খসে খসে যায় তুমি কি একবারও চেয়ে দেখবে না! আজ পাশের বাগানে সবুজ গোলাপের বৃষ্টি ঝরছে অবিরাম ...

Read More »
}
© Copyright 2015, All Rights Reserved. | Powered by polol.co.uk | Designed by Creative Workshop