কবিতা

ফকির ইলিয়াস এর কবিতা

কয়েকটি ভোরের ইতিহাস আমাদের আলোচনা চলছিল ঘরের সমুদ্রসীমা নিয়ে। আর কিভাবে বৃষ্টি গড়িয়ে পড়বে পাতার চালায়, তা নিয়েও ভাবিত ছিলাম আমরা তবে এভাবে ঘর বদলে বাধ্য হবো , তা কখনো কল্পনায় ছিল না। কয়েকটি ভোরের ইতিহাস ও এর মধ্যে পড়ে নিয়েছিলাম আমরা। সূর্য উঠে কাকে প্রথম স্পর্শ করে, কোনো পতাকা মোড়া সকালে একজন যোদ্ধাকে কিভাবে সমাহিত করা হয় এর দৃশ্যাবলি ও খুব কাছে থেকে দেখে নিয়েছিলাম । একটি রুমাল উড়াতে উড়াতে। পোড়া ঘর বিচ্ছিন্ন আগুনের ঘ্রাণ রেখে যাবার পর ও ...

Read More »

মাশূক ইবনে আনিস-এর কবিতা

ক্লান্তজনের কথা আমি ডুবছি এক দ্বান্ধিক ডোবায়, এ কীসের প্ররোচন আমাকে ডুবায়, আমাকে ভাসায়? আমার অন্তর্গত নির্বোধ ইচ্ছেরা- কাতাকুতো দিয়ে আমাকে আবার নিজ থেকেই হাসায়। নির্মম স্বপ্নসমূহ জ্যোৎস্না -স্নাত হয়, নরম রোদের মত সোহাগি হয় যেন কিশোরী- স্তনের অন্তর্ভেদী বহি:প্রকাশ, আমি পথ -বিভ্রান্ত নাবিকের মত দোসর কুয়াশা ভেদ করে কোথায় যাচ্ছি, তুমি কি বলে দিতে পারো প্রিয় মুরলি ময়মোনা? যাদু ‘র মন্ত্রে কে- আমায় অন্ধ করেছে? তুমি যদি জান তার সামান্য খবর, বলো- তার কিঞ্চিত পরিচিতি আমাকে, আমি দ্বিধাগ্রস্হ সান্ধ্যো ...

Read More »

জাহাঙ্গীর রানা’র কবিতা

প্রেমের পাঠ রুপালি চাঁদনী রাতে জোছনার নেই আজ ছুটি দরজাটা খোলা আছে তুমি আসবে মেয়ে ? আসো | তারারা পায়ে পায়ে হেঁটে যায় কোন সুদূরে লুটোপুটি নদী কান পেতে আছে তুমি নাচবে মেয়ে? নাচো, নাচো | রাতের বুকে ওই কিন্নরী সন্ধ্যা আজ হেলান দিয়ে দেখো শুয়ে হাওয়ারা জেগে আছে তুমি উড়বে মেয়ে? উড়ো | জোনাকি জ্বলছে জলে ফাগুনে আগুন আসে বেয়ে আমি তো তৈরী আছি তুমি ও জ্বলবে মেয়ে? তবে জ্বলো | নক্ষত্রের সর্বনাশা আগুন লাগা রাতে ও মেয়ে পুড়তে ...

Read More »

মিলটন রহমান-এর কবিতা

প্রশ্ন তুষারে চাপা পড়ে যাচ্ছে হলুদরঙা পাখিদের বুনটস্মৃতি মাঝে মাঝে জাফরিকাটা পর্দার মত ফোকর গলে উত্থিত পাতাগুলো জানান দিচ্ছে কোথাও কোন একজন জেগে আছে দূরে ছায়ার মত বিস্মৃতির আঁচলে ঢেকে রেখে আসা শৈশব নাকি মধ্য দুপুরে বালিহাটা পথে রেখে আসা যৌথ পদছাপ কোন কিছুই এখন আর স্বচ্ছ মনে পড়ে না বুকের ছাতিম ফেটে দীর্ঘশ্বাস হয়ে যে প্রশ্ন মিলায়ে যায় তার উত্তর এখনো পাইনি, বলে নি সে আড়ালে থেকে যেখান থেকে কোন উত্তর আসে না থরে থরে সাজানো মনুষ্য বাগানে, যখন ...

Read More »

শেখ রানার কবিতা

কবিতার পোস্টকার্ড সত্য বচন বলার প্রহর শেষ ঘ্রাণ বিগত আমার দেশের মাটি নগর পথে দেয়ালগুলো চুপ নগর পথে শব্দ শুনে হাঁটি। শব্দগুলো বেহাত হয়েও আছে আছে বলেই ওদের সাথে দেখা যে সব কথা বলব ভেবেছিলাম সে সব কথা আমার মতই একা। একা হয়ে কদিন বেঁচে থাকবো ট্রেন ছুটেছে ঝাঁপটা দামাল হাওয়া এক পলকে বুকের ভেতর ঘাই মুহূর্ত’পর ঘুমিয়ে পড়ার ধাওয়া। স্বপ্ন ধাওয়া, আমায় তো ছাড়ছে না তুমি আমায় যাও ছেড়ে যাও চলে যাবার আগে কবর খুড়ে দিও স্ববিরোধী মানুষ কথা ...

Read More »

দিলু নাসের এর স্মৃতিকাব্য

যতোবার চোখ রাখি স্মৃতি জানালায় কতো মুখ, কতো চোখ, ডাক দিয়ে যায়। স্মৃতির ভেতরে আছে অনেক স্মৃতি কিছুটা রোদেলা আর কিছু ছায়া বীথি। আছে রোদ,আছে মেঘ, আরো আছে ঝড় চন্দ্র তাঁরায় ভরা স্মৃতি চত্বর। আছে আশা, ভালবাসা, আছে বিশ্বাস নানা রঙে ঝলমলে স্মৃতির আকাশ। আছে প্রেম, অভিমান, হতাশা ও ক্ষোভ তবু দেই বারবার স্মৃতিজলে ডুব। কারণে অকারণে তাই যায় চলে যখন তখন মন,স্মৃতির অতলে। মুক্তো মানিক আর প্রবাল শৈবাল ঝিনুক গহ্বরে ডুবে, আছে মহাকাল। তাইতো অবসরে, স্মৃতির দড়ি ধরে আমিও ...

Read More »

উদয় শংকর দূর্জয় এর কবিতা

কলম ও কালের খেয়া পাল্টে গেছে আমাদের জীবন জলছবি বাতায়ন ফিকে হয়ে গেছে অর্জনের সবকটি রং ধূসর ছায়ায়। জাতি পার করছে বিভীষিকাময় ক্রান্তিকাল। এতোটি বছর পরেও হেরে যায় মুক্তি সন্তানেরা, হেরে যায় রাত-জাগানিয়া পাখি। মৃত্যুশঙ্কায় সিকদাররা ডায়েরির পাতা খুঁড়ে আবিষ্কার করে কঠিন পারদ খাঁচা। সিকদাররা হেরেছিল একাত্তরে, হেরে যাচ্ছে দুই হাজার ষোলতে তবু পঙ্গু স্বপ্ন নিয়ে যন্ত্রণার আকাশ পাড়ি, মেঘলা নামে ফরিদপুরের ভূ-মণ্ডলে। বিত্তজনেরা ভেঙে দেয় কালের খেয়া স্তব্ধ করে দেয় আস্তিনে জমা চৌদ্দটি হৃৎপিণ্ডের প্রতিবাদী মিছিল। অধিকার নয় টিকে ...

Read More »

হাসান মাহমুদ’র কবিতা

এ মাটির তরে যাঁরা ব্রিটিশ ঐ বেনিয়ারা করে গেলো ভাগ দুই পাড়ে দুই দেশ দিলো এক করে, জুলুম-শাসনে পাকি পেলো অধিকার চাল ডাল সবকিছু নিতে ভাগ করে। মায়ের মুখের ভাষা কেঁড়ে নিতে চায় নিতে চায় কেঁড়ে এই জনতার ভোট, সবুজ ধানের ক্ষেত আর নদী নালা সবকিছু কেড়ে নিতে করে হরিলুট। জনতার-ই বুকে জ্বলা আগ্নেয়গিরি দাবানলে রুপ নিলো বাংলার ঘরে, লক্ষ প্রাণেরও কথা এল সুর ধরি বাংলার বীর শেখ মুজিবের স্বরে। রক্তেরও নদীতে বহে সম্ভ্রম গ্লাণি- তিরিশ লক্ষ দেহ হলো বলিদান, ...

Read More »

আবীর ইসলাম’র অণুকবিতাগুচ্ছ

এক. দুঃখ রমনী সাজগোজ করে মার্কেটেতে যাও খুজেঁ খুজেঁ দুঃখ কেনো! দুঃ খগুলো সাজিয়ে রাখো আকুলতার সকেছে, উতলার গালে দাও চুমু। তবু দুঃখ গেলো না অভিমান তোমার দুঃখের বয়স বাড়িয়ে দিয়েছে! দুই. মনর কাঁটা দিয়া মা ফোঁড়া গালতেন দাঁতে দাঁত চেপে সইতাম আরোগ্যের জন্য, বেদনার কাঁটার আঘাত সয়ে যাচ্ছি আশায়… জীবনের ফোঁড়া’র যদি আরোগ্য হয়। তিন. অনেক ঘুম জমা রাখি একদিন ঘুমাবো বলে, আমি দেখেছিলাম আমার বাবা ঘুমাতেন না কোন রাত, ঘুমোনোর আয়োজন চলছিলো বলে। চার. পাশে রেখে সুহানুভূতি, আরো ...

Read More »

মুহাম্মদ মুহিদ’র কবিতা

কাগজ বিলাস আমি চিরকাল কাগজ বিলাসী কাগজের বুকে স্বপ্ন রাখি জমা, সমস্ত ভাবনা করি সমর্পণ দাড়ি-কমা সমেত বাক্য উপমা। ছন্দের পাল্লায় ধ্বনির দূরত্ব মাপি এও আমার এক বিকালের গল্প, অচেনা গলিতে মাঝে মাঝে নিজেকে হারাই তবু খুঁজি পরিচিত চিত্রকল্প। আমার ভাবনার তরী যেন কাগজের বুকে খুঁজে তট, অনুভূতির ছবি আঁকতে শব্দের তুলিতে কাগজ আমার হৃদয়ের চিত্রপট।

Read More »
}
© Copyright 2015, All Rights Reserved. | Powered by polol.co.uk